সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:০৩

পানি উন্নয়ন বোর্ডের বে-সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিদায় অনুষ্ঠানে, নির্বাহী প্রকৌশলীর আগমনে স্কুলটির প্রান ফিরে পেল।

জে,আই,জুয়েল।।
গতকাল পানি উন্নয়ন বোর্ড  প্রাথমিক  বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির  বিদায় অনুষ্ঠান শেষে ছাএ ছাএীদের নিয়ে ফটো সেসন করেন, নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক রঞ্জন দাশ ও উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোঃ রাকিব হোসেন সহ উপ-সহকারী মোঃ শফিকুল ইসলাম সৈকত মোঃ রেজাউল করিম সহ স্কুলের প্রধান শিক্ষক সহ সকলে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় স্কুলটির বিভিন্ন ক্লাস রুম পরিদর্শন শেষে তাদের সমস্যার কথা তুলে ধরেন নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে  শিক্ষক ও অভিভাবক, তাদের দাবি স্কুলটি ১৯৭৭ সালে স্থাপিত হলে ও স্কুলটি পড়ে আছে অবহেলায়। তবে অবহেলায় থাকলেও থেমে নেই শ্রেনি কক্ষের পাঠদান কার্যক্রম, বর্তমানে মোট ছাএ ছাএীর সংখ্যা প্রায় ১০০ জন। প্রধান শিক্ষক মোঃ গিয়াস হোসেন তিনি আমাদেরকে জানান তারা ৪ জন শিক্ষক সহ স্কুলটিতে নিয়োজিত আছেন, তবে তারা অধ্যবদি কোন সরকারী সুযোগ সুবিধা তারা পাচ্ছেন না।  তবে তাদের দাবি স্কুলটিতে পর্যাপ্ত বেঞ্চ আসবাবপত্র না থাকার কারনে স্কুলটির কোমল মতি ছাএ ছাএীদের ক্লাস করতে অমনোযোগী হয়ে পড়ছে। তবে  ভবনটিও বর্তমানে ঝুঁকিতে রয়েছে শ্রেনি কক্ষের বিভিন্ন জায়গায় প্লাস্টার ধষে পড়েছে ছাদ দিয়ে ক্লাস রুমে পানি পড়ে বিভিন্ন  ক্লাস রুমে বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যায়। এমতাবস্থায় অতিঃজরুলী হয়ে পড়েছে স্কুলটির সংস্কার, তারই ধারাবাহিক গতকাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক  রঞ্জন দাশ ও উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোঃ রাকিব হোসেন বিদায় অনুষ্ঠানের বক্তব্যর সময় তারা বলেন আমরা অবশ্যই স্কুলটির এমপি ও করনের বিষয় ও স্কুলটির সংস্কারের উদ্যোগ নিবো আপনারা ক্লাস কার্যক্রম চালিয়ে যান। এদিকে তাদের আস্বাস পেয়ে অনেকটাই আনন্দিত শিক্ষক শিক্ষার্থী বৃন্দ।