বুধবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:১৫

প্রেমের ফাঁদে টিকটক সোহানের বিয়ে প্রতারণার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার।।

স্ত্রী ও সন্তানদের কথা গোপন রেখে সুন্দরী তরুণীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে একাধিক বিয়ের প্রতারণা করে আসছে সাইফুল ইসলাম সোহান ওরফে টিকটক সোহান। শুধু তাই নয় বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতেই তাদের পরিবারের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা মোটরসাইকেল সহ বিভিন্ন মালামাল যৌতুক হিসেবে হাতিয়ে হাতিয়ে

নিচ্ছেন সোহান। সূত্রমতে, গত ১০ বছর আগে খানপুরা গ্রামের বাসিন্দা ও চায়ের দোকানদার আব্দুল হালিম হাওলাদারের ছেলে সাইফুল ইসলাম সোহান ঝালকাঠি জেলার তানিয়া আক্তার নামের এক মেয়েকে বিয়ে করে। বিয়ের বছর ঘুরতে না ঘুরতেই তানিয়াকে যৌতুকের

দাবিতে মারধর শুরু করেন। সন্তান হলে সোহান হয়তো ভালো হয়ে যেতে পারে ভেবে সে দুটি সন্তান নেয়। প্রচলিত ভাষায় একটি কথা রয়েছে কয়লা ধুইলে ময়লা যায় না। তারই জ্বলন্ত প্রমাণ এই সোহান। সুন্দরী মেয়েদের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা করা সহ বিলাসিতা করাই

তার কাজ। একের পর এক প্রতারণা করে বিভিন্ন জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে কখনো বা সমাজের বিত্তবান পরিবারের মেয়েদের ফাঁদে ফেলে ভুয়া কাবিননামা বানিয়ে বিয়ে করেছেন তিনি। কিছুদিন যেতে না যেতেই বিভিন্ন কৌশলের মাধ্যমে আবার তাকে তালাক ও দেয়া হয়।

এরপরে প্রতারণার মাধ্যমে দ্বিতীয় বিয়ে করেন এয়ারপোর্ট থানার মানিককাঠী গ্রামের তানিয়া (ছদ্মনাম) নামে অন্যর স্ত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে করেন। তার সাথে প্রতারণা করে তাকেও তালাক দেন। এরপরে তিনি বাবুগঞ্জ উপজেলার বাহেরচর গ্রামে সুলতান হাওলাদারের মেয়ে লাইজু নাহার পপি নামের এক সুন্দরী তরুণীকে

একই রকম কৌশল করে বিভিন্ন রকমের ভয়-ভীতি দেখিয়ে বিয়ে করতে বাধ্য করে। বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতেই তাকে যৌতুকের দাবিতে মারধর শুরু করে। সে যৌতুক দিতে অস্বীকার করলে তার ছবি এডিট করে অশ্লীল ছবি তৈরি করে মোবাইল ফোনে ভাইরাল করে।

সোহানের হাত থেকে রক্ষা পেতে পপি এয়ারপোর্ট থানায় যৌতুক ও চুরি মামলা সহ কয়েকটি মামলা দায়ের করে। সে পপিকে মামলা তুলে নিতে বললে পপি মামলা তুলে নিতে অস্বীকার করে। একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে সে পপি ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন রকমের মামলা দিয়ে

হয়রানি করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও সোহান পপির বিরুদ্ধে বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে তার সম্মান ক্ষুন্ন করা হয়েছে। অসহায় পপি ও তার পরিবার সোহানের আতঙ্কে জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। তারা সোহানের হাত থেকে বাঁচতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।